ইলিয়াস কাঞ্চনের কুশপুত্তলিকায় জুতার মালা

‘ইলিয়াস কাঞ্চনের গালে গালে, জুতা মার তালে তালে-তুই হইলি অভিনেতা ভিন্ন জগতের লোক নিরাপদ সড়ক চাওয়ার তুই কে? নিরাপদ সড়ক চাইবো আমরা চালক যারা। আমরা চালক যারা তারা হইলো রাস্তার লোক’, এ শ্লোগানকে সামনে রেখে ‘নতুন পরিবহন সড়ক আইন-২০১৮’ সংস্কারের দাবিতে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই টানা ৩য় দিনের মতো টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে পরিবহন শ্রমিকদের অঘোষিত অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি চলছে। অঘোষিত কর্মবিরতি চলা সময়ে আজ বুধবার (২০ নভেম্বর) দুপুর থেকে নিরাপদ সড়ক চাই এর চেয়ারম্যান ও অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চনের কুশপুত্তলিকা বানিয়ে গলায় জুতার মালা পড়িয়ে ভূঞাপুর বাসস্ট্যান্ড চত্বরে দাঁড় করিয়ে সড়ক অবরোধ করে রাখেন বিক্ষোভরত শ্রমিকরা। এতে অনেক শ্রমিকরা ইলিয়াস কাঞ্চলের কুশপুত্তলিকায় গালে জুতা মারেন।

পরিবহন শ্রমিকরা বলেন, আমরা পরিবহন শ্রমিকরা গরীব, খেটে খাওয়া মানুষ। নতুন পরিবহন সড়ক আইনের কালো থাবা থেকে মুক্তি চাই। তাই পরিবহন আইন দ্রুততম সময়ে সংস্কার করতে হবে। না হলে আমরা শ্রমিকরা কঠোর আন্দোলন করব। বিক্ষোভ ও আন্দোলন অব্যাহত থাকবে যতদিন না আমাদের শ্রমিকদের দাবি সরকার না মেনে নেয়। এমনটি জানিয়েছেন শ্রমিকরা। তারা আরো বলেন, নতুন সড়ক আইনের অনেকগুলি বিষয় সংস্কার না করলে তারা পরিবহন সেক্টরে কাজ করবেন না। বিশাল অঙ্কের জরিমানা, শাস্তি আর অপমানজনক ঘাতক শব্দ মাথায় গাড়ী চালাবেন না। আপত্তিকর বিষয়গুলোর সংস্কার দাবি করেন।

এদিকে, গত সোমবার (১৮ নভেম্বর) সকাল থেকে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই ভূঞাপুর থেকে ঢাকাসহ বিভিন্ন রুটে চলাচলরত সকল প্রকার যানবাহন চালানো বন্ধ করে রাখছে শ্রমিকরা। এতে করে চরম ভোগান্তিতে পড়ছে যাত্রীরা। সিএনজি, অটো-রিকশা ও লেগুনা সড়কে চললেও তারা যাত্রীদের থেকে দুই থেকে তিন গুণ ভাড়া বেশী আদায় করছে বলেও অভিযোগ করছেন যাত্রীরা।

ভোগান্তিতে পড়া যাত্রীরা বলেন, অঘোষিতভাবে পরিবহন শ্রমিকরা তাদের কর্মবিরতি করে বাস চলাচল বন্ধ করে রাখছে। এ সুযোগে ছোট ছোট পরিবহন সিএনজি, অটো-রিকশা ও লেগুনা শ্রমিকরা বাড়তি ভাড়া আদায় করছে। এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষের দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছে যাত্রীরা। টাঙ্গাইল জেলা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক চিত্ত রঞ্জন বলেন, শ্রমিকদের এ কর্মবিরতির সাথে ইউনিয়নের কোন সম্পর্ক নেই। আমাদের এ ধরণের কোন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়নি। আগামী ২১ তারিখের দিকে কেন্দ্রীয়ভাবে একটি বৈঠক হবার কথা। তার আগে কোন কর্মসূচি পালন করা হবে না।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন