আসছে কক্সবাজারের আঞ্চলিক ভাষায় নির্মিত সিনেমা ‘ন ডরাই’

নিউজ ডেস্ক:;
‘ন ডরাই’- মানে ভয় পাই না। এটা বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের ভাষা। সম্ভবত এবারই প্রথম এই অঞ্চলের ভাষায় কোনও সিনেমার নামকরণ করা হলো। ছবির সংলাপগুলোও থাকছে একই ভাষায়। সিনেমাটি তৈরিও হয়েছে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতকে ঘিরে। বিষয় সার্ফিং। প্রথমবারের মতো এই বিষয় নিয়ে সিনেমা নির্মিত হয়েছে বাংলাদেশে। শুরু থেকেই ছবিটির ইংরেজি নাম ‘ডেয়ার টু সার্ফ’ জানানো হলেও, বৃহস্পতিবার ২০ জুন প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে এর ভিন্ন ধারার বাংলা নামটি প্রকাশ করা হলো-তাও আবার শুটিং-সম্পাদনা শেষ করে পোস্টার ও ট্রেলার উন্মোচন অনুষ্ঠানে।
স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমানের প্রযোজনায় এটি পরিচালনা করেছেন তানিম রহমান অংশু। ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন ভারতের ‘বুনোহাঁস’ ও ‘পিংক’ ছবির চিত্রনাট্যকার শ্যামল সেনগুপ্ত।
অভিনয় করেছেন শরিফুল রাজ, সুনেরা বিনতে কামাল প্রমুখ।
বৃহস্পতিবার ২০ জুন বিশ্ব সার্ফিং দিবস উপলক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে ছবিটির পোস্টার ও ট্রেলার উন্মোচন হলো। এ উপলক্ষে রাজধানীর বসুন্ধরা শপিং মলে স্টার সিনেপ্লেক্সে আয়োজন করা হয়েছে ‘মিট দ্য প্রেস’। সাংবাদিকদের পাশাপাশি এতে উপস্থিত ছিলেন প্রযোজক, পরিচালক, অভিনেতা-অভিনেত্রীসহ সংশ্লিষ্টরা।
নির্মাতা অংশু জানান, ইতোমধ্যে এ ছবির একটি পোস্টার সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রকাশ হয়েছে। তবে সেটি অফিসিয়াল পোস্টার নয়। শুধুমাত্র আন্তর্জাতিক উৎসবের জন্য পোস্টারটি করা হয়েছে। দেশে মুক্তির আগে বিশ্বের বড় বড় চলচ্চিত্র উৎসবে ছবিটি প্রদর্শিত হবে। সম্প্রতি কান চলচ্চিত্র উৎসবেও প্রদর্শিত হয়েছে ছবিটি। এর গল্প প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘একজন নারী সার্ফারের জীবন থেকে উৎসাহিত হয়ে এ ছবির জন্ম। গল্পটি গড়ে উঠেছে একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে। নারীর এগিয়ে যাওয়ার একটা বার্তাও থাকবে এতে। সিনেমার প্রায় নব্বই শতাংশ দৃশ্যধারণ করেছি কক্সবাজারে। এতে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষার ব্যবহার করেছি বেশি। যেহেতু গল্পটা ঐ অঞ্চলের। তবে তা সবাই যেন বুঝতে পারে, সেভাবেই ব্যবহার করা হয়েছে।’ আগামী অক্টোবরে ছবিটি দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান প্রযোজক মাহবুব রহমান।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন