আমাকে দেখে দর্শকদের যেন মাথা খারাপ না হয় : এভ্রিল

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আলোচনায় আসেন জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল। বর্তমানে মিডিয়ায় নিয়মিত কাজ করছেন তিনি। নাটক, মিউজিক ভিডিওর পর এবার চলচ্চিত্রে কাজ করতে যাচ্ছেন এভ্রিল। এসব বিষয় নিয়ে এক অনলাইনের সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি-

আপনি সিনেমায় কাজ করতে যাচ্ছেন। প্রস্তুতি কেমন?

আমি নাচ তেমন একটা জানি না। তাই এখন নাচে বেশি সময় দিচ্ছি। নাচটা ভালোভাবে আয়ত্ত্ব করার চেষ্টা করছি। পাশাপাশি অভিনয়ও শিখছি। তারপর হয়তো সিনেমার কাজ শুরু হবে।

শোনা যাচ্ছে শাকিব খানের নায়িকা হতে যাচ্ছেন-

আলাপ আলোচনা চূড়ান্ত হয়েছে। কবে, কোথায় কাজ শুরু হবে এখনও আমি কিছু বলতে পারছি না। আমি সিনেমায় কাজ করব এসব বিষয় চূড়ান্ত হয়েছে।

শাকিব খান কি চূড়ান্ত করেছে আপনি তার নায়িকা?

সিনেমাটি নিয়ে আমার কথা বলা নিষেধ। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সবকিছু গুছিয়ে ছবির ঘোষণা দেবেন। তাই এ বিষয়ে চাইলেও আমি এর চেয়ে বেশি কিছু বলতে পারছি না।

ক্যারিয়ারের প্রথম ছবিতেই নায়ক হিসেবে শাকিব খানকে পাচ্ছেন। কেমন লাগছে?

এটা আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া। আমার কাছে এটা একটা স্বপ্নের ব্যাপার। শুরুতেই আমি একজন সুপারস্টারকে পাচ্ছি, যে বাংলাদেশ এবং ভারতে সমানভাবে জনপ্রিয়। এখনও আমার কাছে এটা স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে। একজন সুপারস্টারের বিপরীতে আমি কাজ করতে যাচ্ছি তাই সবার কাছে দোয়া চাই আমি যেন আমার জায়গা থেকে ভালো কিছু দিতে পারি।

ঈদের কোনো নাটকে কাজ করবেন?

দুইটি নাটকে কাজের কথা হয়েছে। হাতে এখনও স্ক্রিপ্ট পাইনি। স্ক্রিপ্ট যদি পছন্দ হয় তবে কাজগুলো করার ইচ্ছে আছে। কারণ আমি সব সময় নিজেকে কাজে ব্যস্ত রাখতে চাই। আমি কাজকে ভালোবাসি।

ক্যারিয়ার নিয়ে আপনার পরিকল্পনা কী?

আপাতত সিনেমা নিয়েই বেশি ভাবছি। বাংলাদেশি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে ভালো কিছু দিতে চাই। আমি ভালো একজন অভিনেত্রী হতে চাই। এখন শুধু সিনেমা নিয়েই ভাবছি।

মিউজিক ভিডিওতেও আপনার দেখা মেলে-

কাজ কোনোটাই ছোট নয়। কাজ যদি ভালো হয় তাতে কোনো সমস্যা নেই। আমি ভালো কাজ পেলে অবশ্যই করব।

মিডিয়াতে আপনাকে নিয়ে নেগেটিভ গুঞ্জনও আছে। এই বিষয়টা কীভাবে দেখেন?

এই নেগেটিভ আলোচনাই আমার সাহস সঞ্চয় করে। যারা নেগেটিভ কথাবার্তা বলে তাদের সংখ্যা কিন্তু বেশি নয়। তাদের নেগেটিভ কথাগুলো শুনলেই আমার কাছে মনে হয় আমার আরও ভালো কাজ করা উচিত। এই ভালো কাজ তাদের সহ্য হচ্ছে না। তাই ভালোর চেয়েও ভালো কাজ করা দরকার। তাহলে সমালোচকদের মুখ বন্ধ হয়ে যাবে। এজন্য আমি সব সময় নিজেকে ভেঙে নতুন করে তৈরি করার চেষ্টা করছি। যতোই আমি নেগেটিভ আলোচনা শুনব ততই নিজেকে ভাঙবো, ভালো কিছু দেওয়ার চেষ্টা করব এবং নিজেকে নতুনভাবে পরিবর্তন করার চেষ্টা করব। তাই নেগেটিভ কোনোকিছুই আমার মাথায় ঢুকে না।

কাজের মান, নাকি কাজে ব্যস্ত থাকা… কোনটাকে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছেন?

কাজের মান, ব্যস্ততা, আমার নিজের অভিনয় সবকিছু খেয়াল রাখি। কারণ আমাকে স্ক্রিনে দেখে দর্শকদের মাথা যেন খারাপ না হয়ে যায়। কেউ যেন না বলে মেয়েটা অভিনয় পারে না। তাই নিজেকে যত বেশি গ্রুম করা যায়। নিজেকে যত বেশি তৈরি করা যায় সেই চেষ্টাই করছি।

প্রেম বা বিয়ে নিয়ে কিছু ভাবছেন?

আমি ক্যারিয়ার নিয়ে অনেক বেশি চিন্তিত। কারণ, আমার বয়স এখন ২১। এই ২১ বছর বয়সে আমার মনে হয় না আমি এমন কিছু করেছি, যার কারণে মানুষ আমাকে খুব বেশি ভালোবাসবে। তাই এখন আমি বিয়ে বা প্রেম নিয়ে সময় নষ্ট না করে ভালো ক্যারিয়ার গড়ে দেশের জন্য কিছু করতে চাই। তারপর প্রেম, বিয়ে নিয়ে ভাববো এখন এসব মাথায় নেই।–আমাদের সময়